দিনাজপুর সদরে সাত দিনের কঠোর লকডাউন

নিজস্ব প্রতিবেদক: সীমান্তবর্তী জেলা দিনাজপুরের সদর উপজেলায় করোনার সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে পরবর্তী সাত দিন এই কঠোর লকডাউন চলবে। জেলা করোনা প্রতিরোধবিষয়ক কমিটির বৈঠক শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) খালেদ মোহাম্মদ জাকী।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৫ জুন থেকে আগামী সাত দিনের জন্য জরুরি পরিষেবা ছাড়া শহরে সব ধরনের যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ থাকবে। সন্ধ্যা ৬টার পর খাবারের দোকান ও ফার্মেসি ছাড়া সব দোকানপাট ও শপিংমল বন্ধ থাকবে।

দিনাজপুর জেলা সিভিল সার্জন সূত্রে জানা গেছে, দিনাজপুরে চলতি মাসে ১৩ দিনে করোনায় ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় গতকাল রোববার রাত ৮টার দিকে জেলা করোনা প্রতিরোধবিষয়ক কমিটির মিটিং শেষে সদর উপজেলায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত জেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ায় ১০০ জনে। এরপর প্রায় দেড় মাস ধরে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হয়নি। পরে ২০ মার্চ জেলায় একজনের মৃত্যু হয়। চলতি জুন মাসের প্রথম থেকে জেলায় আশঙ্কাজনক হারে করোনায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে।

গত ২ জুন জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে একজন, ৪ জুন দুজন, ৫ জুন তিনজন, ৬ জুন দুজন, ৭ জুন একজন, ১১ জুন একজন এবং ১২ ও ১৩ জুন ৪৮ ঘণ্টায় মারা যান পাঁচজন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় একজনসহ জেলায় মোট মৃত্যু হয়েছে ১৪৪ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮৪টি নমুনা পরীক্ষায় ৭০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩৮ দশমিক ০৪ শতাংশ।

দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, তিন সপ্তাহ ধরে করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। বিশেষ করে দিনাজপুর সদর উপজেলায় সংক্রমণ অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। কাজেই করোনা প্রতিরোধে এই মুহূর্তে লকডাউনের কোনো বিকল্প নেই।