কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ককর হ্রাস চায় স্টিল মিলগুলো

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবে স্টিলের মূল কাঁচামাল ফেরাস ওয়েস্ট অ্যান্ড স্ক্র্যাপ ও সহযোগী কাঁচামাল স্পঞ্জ আয়রন আমদানির ওপর আরোপিত সিডি ও এআইটি হ্রাসের জন্য অনুরোধ করেছিলেন ব্যবসায়ীরা। তবে প্রস্তাবিত বাজেটে এসব কাঁচামালের আগাম কর প্রত্যাহার করা হয়েছে। এখন আবারও শুল্ককর হ্রাস চায় স্টিল মিলগুলো।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসএমএ) পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কভিড-১৯-এর কারণে স্টিলের কাঁচামাল ফেরাস ওয়েস্ট অ্যান্ড স্ক্র্যাপ দুষ্প্রাপ্য হওয়ায় আন্তর্জাতিকভাবে এর দাম মাত্রাতিরিক্তভাবে বেড়েছে। আগে প্রতি মেট্রিক টনের আমদানি মূল্য ছিল ৩০০ ইউএস ডলার, যা বর্তমানে প্রায় ৫৩০ ডলারে উঠেছে।

কিন্তু ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে আমদানির ওপর আরোপিত শুল্ককর (সিডি ও এআইটি) হ্রাস করা হয়নি। আগাম কর প্রত্যাহার করা হয়েছে। আমদানিকালে সরকার আগাম কর কর্তন করত, যা পরবর্তীকালে সমন্বয়/ফেরত দেয়া হয়। ফলে বর্তমানে আগাম কর কর্তন ও ফেরত প্রাপ্তির ঝামেলা এবং টাকা আটকে থাকার সমস্যা থেকে মুক্ত হওয়া সম্ভব হয়েছে।

শুল্ককর যেহেতু হ্রাস করা হয়নি, তাই উৎপাদন/বিক্রয় পর্যায়ে আরোপিত ভ্যাটও হ্রাস করা হয়নি। এজন্য রডের মূল্য হ্রাসের জন্য স্টিলের কাঁচামাল আমদানির ওপর আরোপিত শুল্ককর হ্রাস করার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে সংগঠনটি।