প্ল্যাস্টিক হ্যাংগারের কন্টেইনারে মিলল বিপুল বিদেশি সিগারেট

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজস্ব ফাঁকি দিতে প্লাস্টিক হ্যাংগারের মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আনা কন্টেইনারে মিলল বিদেশি ব্র্যান্ডের বিপুল পরিমাণ সিগারেট। বৃহস্পতিবার রাতে এসব সিগারেট খালাসের চেষ্টার সময় তা আটকে দেন চট্টগ্রাম কাস্টমসের এআইআর শাখার কর্মকর্তারা।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের এআইআর শাখার সহকারী কমিশনার রেজাউল করিম জানান, সাভারের রাজ ফুলবাড়িয়া এলাকার ভার্সেটাইল এটায়ার চীন থেকে এক কন্টেইনার প্লাস্টিক হ্যাংগার আমদানির ঘোষণা দেয়। ‘এমভি অ্যালিয়ন’ জাহাজে করে ২৮ মে কন্টেইনারটি বন্দরে এসে পৌঁছায়।

স্থানীয় সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট জয়িতা ট্রেড করপোরেশন শুল্কায়ন প্রক্রিয়া শেষ করে বৃহস্পতিবার বিকালে বন্দরের এনসিটি ইয়ার্ড থেকে খালাসের প্রক্রিয়া শুরু করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চালানটি তল্লাশি করে কাস্টমসের কর্মকর্তারা।

রেজাউল বলেন, ‘ওই চালানে একটি কার্টন পরীক্ষা করে ভেতরে অন্য আমদানিকারকের নাম পাওয়া যায়। একটির ভেতরে দুটি করে সিগারেটের পৃথক কার্টন মেলে। পরে কাস্টমস, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট, বন্দর ও নিরাপত্তা বাহিনীর প্রতিনিধির উপস্থিতিতে সব কার্টনের কায়িক পরীক্ষা করা হয়। ওই চালানের ৩০০ কার্টনের ভেতরে আলাদা ৬০০ কার্টনে ইজি, মন্ড ও ওরিস ব্র্যান্ডের মোট ৬০ লাখ শলাকা বিদেশি সিগারেট পাওয়া যায়, যার বাজারমূল্য প্রায় চার কোটি টাকা।’

মিথ্যা ঘোষণায় বিদেশি সিগারেট আমদানি করে প্রায় সাড়ে ১৪ কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকির চেষ্টা করা হয়েছে বলে জানান এই কাস্টমস কর্মকর্তা। এ ঘটনায় কাস্টমস আইনে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।