প্রযোজক শরীফউদ্দীন খান দীপু আর নেই

শোবিজ ডেস্ক: বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শরীফউদ্দীন খান দীপু আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজিউন। আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজধানীর আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬৫ বছর।

এ তথ্য জানিয়েছেন পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক।

তিনি জানান, সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন দীপু। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুদিন আগে করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। সে সুস্থ হয়েছিলো।

তবে তখনও তার ফুসফুসে সমস্যা ছিলো। তাই তাকে আইসিইউতে রেখেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিলো। সেখানেই আজ শুক্রবার সকালে মৃত্যুবরণ করেন।

প্রসঙ্গত, দেশে হাতেগোনা কয়েকজন পুরনো এবং প্রতিষ্ঠিত প্রযোজকের মধ্যে একজন তিনি। শুধু প্রযোজক হিসেবেই নয়, পরিচালক, চলচ্চিত্র শিল্পের নেতা হিসেবেও তার সুনাম রয়েছে।

মো. শরীফ উদ্দিন খান দিপু পেশায় ছিলেন ব্যবসায়ী। নব্বই দশকের শুরুতে পরিচালক ফিরোজ আল মামুনকে দিয়ে ‘কাল পুরুষ’ নির্মাণ করে চলচ্চিত্র প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। এরপর তিনি বিশিষ্ট পরিচালক শওকত জামিলকে দিয়ে নির্মাণ করেন ‘গুণ্ডা পুলিশ’। বেশ ব্যবসা সফল হয় এ সিনেমাটি। পরবর্তীতে মান্না ও ঋতুপর্ণাকে নিয়ে ‘দেশদরদী’ নামে একটি সিনেমা নির্মাণের মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন পরিচালক হিসেবে। সেই থেকে ‘কোটি টাকার প্রেম’ সিনেমার আগ পর্যন্ত নিজেই ১৫টি সিনেমা পরিচালনা করেন। যেগুলোর মধ্যে রয়েছে, ‘রাজা নাম্বার ওয়ান’, ‘কালো কাফন’, ‘আমি গুণ্ডা আমি মাস্তান’, ‘পুলিশ অফিসার’, ‘ওরা ভয়ঙ্কর’, ‘দাদাগিরি’, ‘শীর্ষ খুনি’, ‘রংবাজ পুলিশ’, ‘শত্রু মোকাবিলা’, ‘আজকের চাঁদাবাজ’, ‘এক লুটেরা’, ‘হীরা আমার নাম’, ‘এনকাউন্টার’ এবং ‘ওরা কারা’।