টিকেটের দাবিতে কারওয়ান বাজারে সৌদিপ্রবাসীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনসের টিকেট না পেয়ে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে কারওয়ান বাজারের সার্ক ফোয়ারার মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন প্রবাসীরা। এ সময় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সড়কে দেখা দেয় দীর্ঘ যানজট। পরে পুলিশ সদস্যরা তাঁদের বুঝিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে নিয়ে যান। বর্তমানে প্রবাসীরা সোনারগাঁও হোটেলের পাশে রয়েছেন। সেখানেই সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইনসের টিকেটের মূল বিক্রয়কেন্দ্র।

এর আগে গতকাল সোমবারও সোনারগাঁও হোটেলের পাশে বিক্ষোভ করেন প্রবাসীরা। এ ছাড়া জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়েও বিক্ষোভ করেন তাঁরা।

সৌদিপ্রবাসীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সৌদি সরকার হঠাৎ করেই ঘোষণা দিয়েছে যে শ্রমিকদের আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সৌদি আরবে ফিরতে হবে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত মার্চ মাসের শেষের দিকে সৌদি আরবের সঙ্গে সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকায় অনেক শ্রমিক দেশে এসে আর ফিরতে পারেননি। অনেক শ্রমিক রয়েছেন, যাঁদের বৈধ পাসপোর্ট, আকামা বা সৌদি আরবে কাজের অনুমতিপত্র এবং বিমানের টিকেট থাকা সত্ত্বেও তাঁরা যেতে পারেননি।

অনেকেরই ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে বা যাওয়ার পথে। এঁদের সংখ্যা দুই লাখের মতো। বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শ্রমিকের গন্তব্য সৌদি আরব।

এদিকে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে সৌদি আরবের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পুনরায় চালুর একটা ঘোষণা এসেছিল সেখানকার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। বাংলাদেশের সরকারি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসও সৌদি সরকারের শর্ত সাপেক্ষে ফ্লাইট আংশিকভাবে চালু করতে চেয়েছিল।

কিন্তু সৌদি আরবের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সেই অনুমতি বাংলাদেশ বিমানকে দেয়নি। এরপর বাংলাদেশও সৌদি এয়ারের ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি বাতিল করে দেয়।

প্রবাসী শ্রমিকদের অভিযোগ, বিমানের কারণে সৌদি এয়ারলাইনসের চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাঁরা আটকে পড়েছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস আগামী ১ অক্টোবর থেকে সৌদি আরবে বাণিজ্যিক ফ্লাইট শুরুর অনুমতি পেলেও দরকার হচ্ছে ল্যান্ডিং পারমিশনের।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোকাব্বির হোসেন জানান, ল্যান্ডিং পারমিশন নিশ্চিত হলেই ফ্লাইট ঘোষণা করা হবে। সেইসঙ্গে ফ্লাইট ঘোষণার আগে টিকেট কাউন্টারে ভিড় না করতে যাত্রীদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। তিনি বলেন, যাঁদের আগে টিকেট কাটা আছে, তাঁরাই প্রথমে আসন বরাদ্দের সুযোগ পাবেন। আপাতত মিলবে না নতুন টিকেট।