আগস্টে রেমিটেন্স ১ হাজার ৯৬৩ মিলিয়ন ডলার

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহামারীর মধ্যেও প্রবাসীরা চলতি বছরের আগস্ট মাসে আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৫১৯ দশমিক ১৮ মিলিয়ন ডলার বেশি রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়েছেন। চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে (জুলাই-আগস্ট) প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন ৪ হাজার ৫৬৩ দশমিক ৪৮ মিলিয়ন ডলারের রেমিটেন্স।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে দেখা গেছে, আগস্ট মাসে প্রবাসীরা ১ হাজার ৯৬৩ দশমিক ৯৩ মিলিয়ন ডলারের রেমিটেন্স দেশে পাঠিয়েছেন। যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৫১৯ দশমিক ১৮ মিলিয়ন ডলার বেশি। ২০১৯ সালের আগস্টে প্রবাসীরা দেশে পাঠিয়েছিলেন ১ হাজার ৪৪৪ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন ডলারের রেমিটেন্স।কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের জুলাই মাসের তুলনায় আগস্ট মাসে রেমিটেন্স কমেছে ৬৩৫ দশমিক ৬২ মিলিয়ন ডলার। জুলাই মাসে প্রবাসীরা ২ হাজার ৫৯৯ দশমিক ৫৫ মিলিয়ন ডলারের রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন।

আবার আগের অর্থবছরের একই সময়ের হিসাবে রেমিটেন্স বেড়েছে ১ হাজার ৫২১ দশমিক শূন্য ৪ মিলিয়ন ডলার। ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম দুইমাসে (জুলাই-আগস্ট) প্রবাসীরা ৩ হাজার ৪২ দশমিক ৪৪ মিলিয়ন ডলারের রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন।সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বৈধ পথে রেমিটেন্স বাড়ায় সরকার ২ শতাংশ প্রণোদনা দিচ্ছে। একই সঙ্গে করোনা মহামারীর কারণে প্রবাসে থাকা শ্রমিকরা নিজেদের কাছে কোনো অর্থ না রেখে দেশে পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এসব কারণে গত কয়েক মাস ধরেই রেমিটেন্সের প্রবৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।