সম্পর্ক বেগবানের বার্তা নিয়ে এসেছেন শ্রিংলা : পররাষ্ট্র সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক: পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠকে ভারতের কাছে দুই দেশের সম্পর্কের উন্নয়ন, সীমান্ত হত্যা বন্ধসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে ভারতের সহযোগিতা চেয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব।

আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে দ্বিপক্ষীয় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। মধ্যাহ্নভোজ পরবর্তী এ বৈঠকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা অংশ নেন।

বৈঠক শেষে হোটেল থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

বিশেষ বিমানে আকস্মিক এ সফরে কী বার্তা নিয়ে এসেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘কোভিড পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরো বেগবান করার বার্তা নিয়ে এসেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব।’

তবে ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের এ সফরকে আকস্মিক বলতে নারাজ মাসুদ বিন মোমেন। তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্ব করোনায় আক্রান্ত না হলে তিনি হয়তো আরো কয়েকবার ঢাকায় আসতেন। আবার আমিও কয়েকবার ভারতে যেতাম। তাঁর (শ্রিংলা) এ সফর আমাদের সম্পর্কের ক্ষেত্রে একটি ব্রেক-থ্রো।‘

আনুষ্ঠানিক এ বৈঠকে কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানতে চাইলে মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘ভারত অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা উৎপাদনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। বর্তমানে ভারতে এ টিকার ট্রায়াল হচ্ছে। ভারতে এ টিকা ডেভেলপ হলে আমাদেরও তা দিয়ে সহযোগিতা করতে চায় তারা। তারা (ভারত) চায় অগ্রাধিকারভিত্তিতেই আমাদের এ টিকা দিতে। এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।’

‘সীমান্ত হত্যার বিষয়টি আমরা আজকের বৈঠকে তুলে ধরেছি’- এমনটা উল্লেখ করে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘তিনিও (শ্রিংলা) সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার বিষয়ে কথা বলেছেন। আগামী মাসে দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর যৌথ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে এ বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।’

মাসুদ বিন মোমেন আরো জানান, ‘ভারত জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে ভারতকে সমর্থন দিয়েছিলাম। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাস্তুচ্যুত হওয়ার পর রাখাইনের ওই অঞ্চলে বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নে ভারত ভূমিকা রাখছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পরবর্তী বৈঠকে ভারত যাতে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রস্তাবের পক্ষে ভূমিকা রাখে- এজন্য আজকের বৈঠকে আমি বিষয়টি তুলে ধরেছি।’

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক খারাপ যাচ্ছে। সম্পর্কের উন্নয়নে মোদির পক্ষ থেকে বিশেষ বার্তা নিয়ে বাংলাদেশে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব এসেছেন বলে দুই দেশের গণমাধ্যমে সংবাদ এসেছে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রত্যেকে নিজ নিজ দেশের প্রথম সারির (মেইনস্ট্রিম) গণমাধ্যমগুলোর সঙ্গে কথা বলব। সম্পাদক ও সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকদের সঙ্গে মতবিনিময় করে আমাদের দুই দেশের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের গভীরতার বিষয়টি তুলে ধরব।’

এ ছাড়া দ্বিপক্ষীয় অমীমাংসিত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্র সচিব।

ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা দুই দিনের সফরে গতকাল মঙ্গলবার বিশেষ বিমানে ঢাকায় আসেন। গতকাল রাতে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন।