সম্পদের পাহাড় গড়েছেন ওসি প্রদীপ

নিজস্ব প্রতিবেদক: টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, তার স্ত্রী চুমকি করণের নামে গড়েছেন কোটি টাকার সম্পদ। চট্টগ্রাম কক্সবাজারসহ নানা স্থানে থাকা এসব সম্পদের ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে দুদক। তার অর্থের উৎস খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার দাবি করেছেন বিশিষ্টজনেরা।

চট্টগ্রাম নগরীর পাথরঘাটার লক্ষ্মীকুঞ্জ নামে ৬ তলা এই অট্টালিকা টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ গড়েছেন তার স্ত্রীর নামে। এছাড়াও স্ত্রীর নামে আরো রয়েছে নগরীর ষোলশহরে জমি, কক্সবাজারে ফ্ল্যাট, দুইটি গাড়ি, ৪৫ ভরি স্বর্ণ।

২০১৮ সালে দুদকে জমা দেয়া সম্পদ বিবরণীতে দেখা যায় স্ত্রীর নামে ৩ কোটি ৫৯ লক্ষ টাকার সম্পত্তি করেছেন এই সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা। ২০১৮ সালে দুদকের তদন্ত শুরু হলেও কোন এক অজানা কারণে তদন্ত কাজ থেমেছিল। টেকনাফের ঘটনার পর আবারও তদন্তে নেমেছে দুদক।

অভিযোগ আছে নিজের সৎ বোনসহ অনেকের জায়গা অবৈধভাবে দখল করেছেন প্রদীপ।প্রদীপের অর্থের উৎস খুঁজে বের করে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন বিশিষ্টজনেরা।

এদিকে, আনুষ্ঠানিক কোন বক্তব্য না দিলেও দুদক চট্টগ্রাম ইউনিট-২-এর উপ-পরিচালক মাহাবুবুল আলম জানান, যত দ্রুত সম্ভব তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।