রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদকে নিয়ে উত্তরায় ডিবির অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার নমুনা পরীক্ষা নিয়ে প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে নিয়ে গতরাতে (শনিবার দিবাগত রাত) অভিযান চালিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ। রাজধানীর উত্তরায় এই অভিযানে সাহেদের ব্যক্তিগত একটি গাড়ি থেকে ১০ বোতল ফেন্সিডিল, ৫ বোতল বিদেশি মদ ও এক রাউন্ড গুলিসহ পিস্তল উদ্ধার করা হয়। বৈশাখী অনলাইনকে এসব তথ্য জানিয়েছেন উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

অভিযানের পর উত্তরা পশ্চিম থানায় সাহেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলা করা হয়েছে।

এদিকে, রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের প্রতারণা ও নির্যাতন নিয়ে অভিযোগ জানানোর জন্য চালু হওয়া হটলাইনে গত ২৪ ঘণ্টায় ৯২টি অভিযোগ এসেছে। এরমধ্যে টেলিফোনে ৭২টি ও বাকিগুলো ই-মেইলে এসেছে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আশিক বিল­াহ শনিবার রাতে বলেন, “আমরা ৯২টি অভিযোগ পেয়েছি। এই ৯২টির মধ্যে ২০টি মেইলে এবং ৭২টি ফোনে।

“আমরা এটাকে হটলাইন বলছি না, হট সেবা বলছি। অভিযোগকারীদের কেউ চিকিৎসার নামে প্রতারিত হয়েছেন, কেউ বালু-পাথর সরবরাহ করতে গিয়ে প্রতারিত হয়েছেন, কাউকে ব্যাংক লোন পাইয়ে দেবে বলে অগ্রিম টাকা নেওয়া হয়েছে।”

তিনি বলেন, রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে প্রতারণার অনেক মামলা রয়েছে। তিনি বিভিন্ন পরিচয় ব্যবহার করে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। অনেকেই অভিযোগ করেননি। তবে সাহেদ গ্রেফতার হওয়ার পর প্রতারণার শিকার অনেক ভুক্তভোগী র‌্যাবের সঙ্গে যোগযোগ করছেন।