মির্জাগঞ্জে ধর্ষণের অভিযোগে ছোট ভাইয়ের শ্বশুর আটক

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে (২৮) বছরের এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে ছোট ভাইয়ের শ্বশুর সোবাহান গোলদারকে (৪২) আটক করেছে পুলিশ।

আটক সোবাহান উপজেলার মির্জাগঞ্জ গ্রামের মৃত লতিফ গোলদারের ছেলে।
এ ঘটনায় সোমবার ভুক্তভোগী তরুণী মির্জাগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তরুণীর ‌‌১১ বছর আগে জামালপুর জেলার বালিঝুড়ি গ্রামের সোলেয়মানের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের ছয় বছর পর স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ হয়। বর্তমানে তার ১০ বছরের একটি ছেলে সন্তান আছে।

স্বামীর সাথে বিচ্ছেদের পর ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন ওই মেয়ে।

গত বছরের ১৩ আগষ্ট ওই তরুণীর ছোট ভাই সুমনের সাথে আটক সোবাহানের মেয়ের বিয়ে হয়। তরুণী ছুটি পেয়ে নতুন বউয়ের জন্য কাপড় নিয়ে ভাইয়ের শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে যান। মেয়েটির ভাইয়ের শ্বশুর বিয়ে দেয়ার কথা বলে অনেক দিন ওই বাড়িতেই রাখেন। এ সময় ভালো বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছয় মাস ধরে দুই তিন দিন পর পর শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যান। বাবার বাড়ি এসে বিষয়টি পরিবারকে জানান মেয়েটি। এরপর রোববার সন্ধ্যার মেয়েটির বাবার বাড়িতে এসে শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও চিত্র আছে বলে হুমকি দেন। পরে স্থানীয়রা তাকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মহিববুল্লাহ বলেন, এ ঘটনায় মামলা দিয়ে আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে।