২১ আগস্টের প্রাইম টার্গেট ছিলেন শেখ হাসিনা : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্টের হত্যাকাণ্ড একই সূত্রে গাঁথা বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এ দুটি হত্যাকাণ্ড একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা।

ওবায়দুল কাদের আজ সোমবার সকালে ২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলাবিষয়ক সম্পাদক এবং প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানের বনানী কবরস্থানে ফাতেহা পাঠ ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। আইভি রহমানের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘১৫ আগস্টের প্রাইম টার্গেট ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আর ২১ আগস্টের প্রাইম টার্গেট ছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা।’

আগস্ট ষড়যন্ত্র ও হত্যাকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘জিয়াউর রহমান যদি বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় ও বিদেশে দূতাবাসে চাকরি না দিতেন, খন্দকার মোশতাকের ইনডেমনিটি অধ্যাদেশকে বৈধতা দিয়ে খুনিদের বিচারের পথ রুদ্ধ না করতেন এবং সেনাপ্রধান না হতেন, তাহলে আজকের ইতিহাস হয়তো ভিন্নতর হতো।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যারা খুন করে আর যারা খুনিদের আশ্রয় ও প্রশ্রয় দেয়, উভয়েই সমান অপরাধী। আজকে অনেকেই রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে পারস্পরিক ঐক্য ও সমঝোতার কথা বলেন। এ ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে যে অলঙ্ঘনীয় দেয়াল তৈরি হয়েছে, ২১ আগস্ট সে দেয়াল আরো উঁচু হয়েছে। আমাদের নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে একটি ওয়ার্কিং আন্ডারস্ট্যান্ডিং চান। তিনি বারবার বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে সমঝোতার জন্য চেষ্টা করেছেন। ২০১৪ সালে সমঝোতার জন্যই খালেদা জিয়াকে ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন খালেদা জিয়া কী ভাষায় জবাব দিয়েছিলেন, সেটা জাতি জানে। ২১ আগস্টের ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে জজ মিয়া নাটকসহ তদন্তে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা হয়। এ ইতিহাস অস্বীকার করা যায় না।’

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আপনি বারবার প্রধানমন্ত্রীকে টার্গেট করে বলছেন—আমাদের নেত্রী নাকি আপনাদের নেত্রীকে ছোট করছেন। আমি আপনার কাছে প্রশ্ন রাখতে চাই—আপনারা কয়েকবার ক্ষমতায় ছিলেন, আপনারা আপনাদের দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের হত্যার বিচার কেন করলেন না? এমনকি আপনারা বিচারের কথাও বলছেন না। এটা কেন? আমরা জিয়াউর রহমানের হত্যার নিন্দা করেছি। আমরা এ ধরনের হতাকাণ্ড চাই না।’