বন্যায় ১,৩২৩ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার তিন দফার বন্যায় বাংলাদেশের ৩৭টি জেলায় ১ হাজার ৩২৩ কোটি টাকার ফসল নষ্ট হয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। আজ বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রথম দফার বন্যায় ১৪টি জেলায় ১১টি ফসলের ৪১ হাজার ৯১৮ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতির পরিমাণ ৩৪৯ কোটি টাকা এবং ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের সংখ্যা ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৯৫৭ জন।দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার বন্যায় ৩৭টি জেলায় ১৪টি ফসলের প্রায় ১ লাখ ১৬ হাজার ৮৯৬ হেক্টর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতির পরিমাণ ৯৭৪ কোটি টাকা। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৯ লাখ ২৯ হাজার ১৯৪ জন কৃষক। সব মিলিয়ে এবারের বন্যায় প্রথম ৩৭টি জেলায় সর্বমোট ১ হাজার ৩২৩ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রতি বছরের মত এবছরও বিভিন্ন মেয়াদে পাহাড়ি ঢলের কারণে বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করায় ফসলি জমি প্লাবিত হয়। এবার কয়েক দফার বন্যার কারণে বন্যা অনেক দীর্ঘস্থায়ী হয়েছে। ফলে ৩৭টি জেলায় আউশ ধান, আমন ধান, আমন বীজতলা, শাক-সবজি, পাটসহ বেশকিছু ফসলের অনেক ক্ষতি হয়েছে।

কৃষিমন্ত্রী জানান, বন্যার পানিতে ২ লাখ ৫৭ হাজার ১৪৮ হেক্টর ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত জমির পরিমাণ ১ লাখ ৫৮ হাজার ৮১৪ হেক্টর। আর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ১২ লাখ ৭২ হাজার ১৫১ জন কৃষক।

তিনি বলেন, সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩২ হাজার ২১৩ হেক্টর জমির আউশ ধান, ৭০ হাজার ৮২০ হেক্টর জমির আমন ধান এবং ৭ হাজার ৯১৮ হেক্টর জমির আমন বীজতলা। টাকার হিসাবে আউশ ধান ৩৩৪ কোটি, আমন ধান ৩৮০ কোটি টাকা, সবজি ২৩৫ কোটি, পাট ২১১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

বন্যার পূর্বাভাস পাওয়ার সাথে সাথেই কৃষি মন্ত্রণালয় প্রস্তুতি নিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মাঠ পর্যায়ের সব কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট সবাই সতর্ক ছিলেন। ফসলের ক্ষতি কমিয়ে আনার জন্য কৃষককে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।