মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী মামলার আসামি জোবায়ের মনিরের জামিন বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক : জামিনের শর্ত ভঙ্গ করায় মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আসামি সুনামগঞ্জের জোবায়ের মনিরের জামিন বাতিল করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

প্রসিকিউশনের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে ট্রাইব্যুনালের বিচারিক প্যানেল আজ রোববার এ আদেশ দেয়। অসুস্থতা দেখিয়ে ট্রাইব্যুনাল থেকে শর্ত সাপেক্ষে জামিন পান এ আসামি। শর্ত ভঙ্গ করায় জামিন আদেশ বাতিল চেয়ে আবেদন করেন প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম। তিনি বলেন, শর্ত ভঙ্গ করায় আমরা আবেদন করেছি। আদালত জামিন বাতিল করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে জামিন আবেদন করার পর আসামিকে সাতটি শর্তে জামিন দেয়া হয়। জামিনের অন্যতম শর্ত ছিল তিনি মোহাম্মদপুরে ছেলের বাসায় থাকবেন। আর কোনো সাক্ষী ও মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে কাউকে প্রভাবিত করতে পারবেন না। এরূপ সাতটি শর্ত দিয়ে তার জামিন মঞ্জুর করা হয়। কিন্তু তিনি জামিন নেয়ার পর শর্ত ভঙ্গ করে সুনামগঞ্জে নৌবিহারে গিয়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন।

জামিনের শর্ত ভঙ্গ করে এ আসামি ঈদে গ্রামের বাড়ি শাল্লা উপজেলার দৌলতপুরে গিয়ে পশু কোরবানিতে অংশ নেন। পরে লোকজন নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ৩ আগস্ট ঢাকায় ফেরেন।

মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা, নারী নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের অভিযোগে জোবায়ের মনির, তার ভাই প্রদীপ মনির ও চাচা মুকিত মনিরসহ অপরাধে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ জমা দেয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২১ মার্চ অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়।

মুক্তিযোদ্ধা রজনী দাসের দায়ের করা মামলায় ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর জোবায়ের মনির, জাকির হোসেন, তোতা মিয়া টেইলার, সিদ্দিকুর রহমান, আব্দুল জলিল, আব্দুর রশিদসহ অভিযুক্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযোগ দায়েরের পরই আমেরিকায় পালিয়ে যায় অভিযুক্ত মুকিত মনির।

২০১৯ সালের ১৭ জুন তদন্ত সংস্থা মানবতাবিরোধী অপরাধে জোবায়ের মনিরসহ ১১ জন জড়িত বলে ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল করে।