বরিশালে ৮ ঘণ্টায় করোনা ওয়ার্ডে ৫ রোগীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৮ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন করোনা নেগেটিভ, একজন করোনা পজিটিভ এবং বাকি তিনজনের নমুনা সংগ্রহ করে মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

আজ শুক্রবার দুপুরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয় থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, গত বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টা থেকে রাত সাড়ে নয়টার মধ্যে ওই ৫ রোগী করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

দুপুর দেড়টায় লাইলী বেগম (৩২) মারা যান। তাকে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। বিকেল ৪টায় আ. মালে (৬৭) নামে এক রোগী মারা যান। ওইদিন দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে তাকে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তার নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

সন্ধ্যা ৬টা ৫ মিনিটের সময় হাজি মো. ইউনুস (৫০) চিকিৎসাধীন অবস্থা মারা যান। তাকে গত ১ আগস্ট রাত সাড়ে ১১টায় হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ এসেছে। সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটের সময় মোশাররফ হোসেন (৭০) মারা যান। গত ৩০ জুলাই রাত পৌনে ১০টায় তাকে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ এসেছে। এ ছাড়া রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুলসুম বেগম (৭৫) মারা যান। তাকে গত ২ আগস্ট দুপুর ২টার দিকে করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তার নমুনা পরীক্ষা করোনা নেগেটিভ এসেছে।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. বাকির হোসেন বলেন, এই নিয়ে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১১৭ জন রোগী মারা গেছেন। তাদের মধ্যে করোনা পজিটিভ হয়েছে ৪৫জন।