এনু-রূপনের ২০টি বাড়ি, ১২৮টি ফ্ল্যাট: সিআইডি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্যাসিনোকাণ্ডের মামলায় গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা এনামুল হক এনু ও তাঁর ভাই রূপন ভূঁইয়াসহ ৫১ জনের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে করা চার মামলার অভিযোগপত্র প্রস্তুত করেছে বাংলাদেশ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। শিগগিরই এই চার্জশিট দেওয়া হবে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ডিআইজি (সিরিয়াস ক্রাইম) ইমতিয়াজ আহমেদ এ কথা জানান।

ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘এনামুল হক এনু ও তাঁর ভাই রূপন ভূঁইয়াসহ ৫১ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মানি লন্ডারিং আইনের চার মামলার চার্জশিট প্রস্তুত করা হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে যেকোনো সময় আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করা হবে।’

ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘গত পাঁচ বছরে এনু-রূপনের বিভিন্ন ব্যাংক হিসাবে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। বর্তমানে ৯১টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ১৯ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। রাজধানীতে তাদের ২০টি বাড়ি, ১২৮টি ফ্ল্যাট ও ২৫ কাঠা জমির হিসাব পাওয়া গেছে। ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের সময় তাদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে সিন্দুক থেকে ২৬ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়। ক্যাসিনো ব্যবসা এনু-রূপনদের পারিবারিক ব্যবসা। তার বাবাও এই ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।’