সহজ শর্তে ঋণ পাবেন বিদেশ ফেরত ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীরা

কর্পোরেট সংবাদ ডেস্ক : করোনা-ভাইরাসের (কভিড-১৯) বৈশ্বিক-প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ও ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মধ্যে আজ একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে। রোববার দুপুর ২ টার দিকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব ড.আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহতাব জাবিন ও ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহা-পরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান নিজ-নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। স্বাক্ষরিত এ সমঝোতা স্মারকের আওতায় ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক’কে ২ শ’ কোটি টাকা বিনা সুদে ঋণ হিসেবে প্রদান করবে।

অপরদিকে ঋণের এই টাকায় গঠিত তহবিল থেকে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক শতকরা ৪ ভাগ সরল সুদে ‘কোভিড-১৯’র বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে দেশে-ফিরে আসা প্রবাসী-বাংলাদেশী কর্মীদের পুনর্বাসন এবং পুন:অভিবাসনের লক্ষ্যে বিনিয়োগ-ঋণ প্রদান করবে।

এমওইউ অনুযায়ি, বৈধভাবে বিদেশে গমনকারী কর্মী বা বিদেশ থেকে বৈধভাবে রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন এমন কর্মী এবং করোনা-আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারি কর্মীদের পরিবার এ ঋণ পাওয়ার জন্য উপযুক্ত বিবেচিত হবেন। ঋণ প্রদান ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম – এ বিষয়ে প্রণীত নীতিমালা অনুযায়ি সম্পাদিত হবে। স্বচ্ছ ঋণ ব্যবস্থাপনা ও ঋণ-কার্যক্রম দ্রুত নিশ্চিতের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় বিভিন্ন অংশীজনকেও সংযুক্ত করা হবে।

এ সময় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলেন,‘করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসী কর্মীদের টেকসই পুনর্বাসনের লক্ষ্যে স্বল্প ও সরল সুদে এই ঋণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত্ব ৫ শ’ কোটি টাকার আরো একটি তহবিলের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাপক পুনর্বাসন কর্মসূচী হাতে নেওয়া হবে।’

সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে অন্যান্যের প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের চেয়ারম্যান বেগম শামছুন নাহার, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মোঃ শামসুল আলম, বোয়েসেল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ সাইফুল ইসলাম বাদল ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ শহিদুল আলম উপস্থিত ছিলেন।