আদালতে ডা. সাবরিনা, করা হবে রিমান্ড আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার পরীক্ষায় জালিয়াতিসহ চার মামলায় গ্রেপ্তার ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেকেজি (জোবেদা খাতুন সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা) হেলথ কেয়ার ও ওভাল গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা এ চৌধুরীকে আজ সোমবার সকালে আদালতে নেওয়া হয়েছে।

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের সদ্য বরখাস্ত এ রেজিস্ট্রার ও কার্ডিয়াক সার্জনের চার দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ডা. সাবরিনা শারমিন হুসাইন ওরফে ডা. সাবরিনা এ চৌধুরী ওরফে সাবরিনা আরিফ চৌধুরী ওরফে সাবরিনা মিষ্টি চৌধুরী জেকেজি হেলথ কেয়ারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আরিফুল হক চৌধুরীর চতুর্থ স্ত্রী। আরিফ নিজেও এসব মামলায় কারাগারে আছেন।

এর আগে ডা. সাবরিনা এ চৌধুরীকে রবিবার দুপুরে আটক করে তেজগাঁও থানা পুলিশ। পরে করোনা পরীক্ষায় জালিয়াতিসহ তাকে চার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার হারুন অর রশীদ জেকেজি গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনার গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, করোনা সনদ জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে তেজগাঁও থানায় করা মামলাগুলোয় (চার মামলা) তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৩ জুন করোনার মনগড়া সনদ দেওয়া, জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে তেজগাঁও থানা পুলিশ আরিফসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে। অভিযান তদারকি করেন তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার হারুন অর রশীদ।

গ্রেপ্তারের পর থানা-হাজতে থাকা অবস্থায় আরিফুরের ক্যাডার বাহিনী ভাঙচুর ও হামলা করে থানায়। মারধর করে পুলিশকেও। এসব ঘটনায় মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়।