বন্যাকবলিত মানুষের পাশে নেই সরকার: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করে বলেছেন, ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে দেশের বিভিন্ন এলাকা বন্যাকবলিত হলেও তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে না সরকার। আজ শনিবার দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ভিডিও কনফারেন্সে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, অসংখ্য মানুষ এখন পানিবন্দী হলেও বন্যাকবলিত মানুষদের নিয়ে সম্পূর্ণরূপে নির্বিকার সরকার। বন্যা উপদ্রুত মানুষের সাহায্যের জন্য সরকারের কোনো তৎপরতা নেই।

তিনি বলেন, এমনিতেই করোনার অভিঘাতে বিপর্যস্ত দেশ তার ওপর ধেয়ে আসার বন্যার কবলে জনজীবন এখন চরম ভোগান্তির মধ্যে।

অবিলম্বে বন্যাদুর্গত এলাকায় মানুষকে বাঁচাতে দেশবাসীকে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করেন বিএনপি মুখপাত্র।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আওয়ামী জাহেলিয়াতের এই অন্ধকার সময়ে ক্ষমতাসীন দলের সরকার ও প্রশাসনের প্রশ্রয়ে জেকেজি হেলথ কেয়ার কিংবা আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটির সদস্য সাহেদ চক্রের দৌরাত্ম শুধুমাত্র নগদ অর্থ কেলেঙ্কারির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, এরা মানুষের জীবন নিয়েই ব্যবসা শুরু করে দিয়েছিল করোনা পরীক্ষার নকল সনদ দিয়ে। তাদের এই ব্যবসার বলি হচ্ছে জনগণ।’

রিজভী বলেন, বর্তমান আমলে দুর্নীতি-অনিয়ম-চুরি-বাটপারি যেভাবে নির্বিঘ্নে ও অবাধ হয়েছে, আওয়ামী শাসন ব্যতিরেকে কখোনোই এমন ছিল না। সাহেদরাই বর্তমান আওয়ামী শাসনের নমুনা।

তিনি বলেন, ‘জীবন হাতের মুঠোয় নিয়ে কাতরাতে কাতরাতে হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে ছুটছেন মানুষ। …এই দুর্বিষহ সংকটের মধ্যেও চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয় করার নামে শত শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে সরকারি দলের লোকেরা।’

বিএনপি মুখপাত্র বলেন, ‘প্রতিটি দুর্নীতির সঙ্গে সরকার ও প্রশাসনের যোগসূত্র ছিল প্রায় ওপেন সিক্রেট। শুধু তাই নয়, এইসব দুর্নীতিবাজরা ক্ষমতাসীন দলের পদ-পদবীধারী নেতা হওয়ায় সখ্যতা দেখা গেছে প্রভাবশালীদের সঙ্গে।’

তিনি বলেন, গত এক দশকের বেশি একটানা ক্ষমতায় থেকেও নিশিরাতের এই সরকারের নিজেদের সাফল্যের কিছু নেই বলেই এখনো তাদেরকে অতীতের কাসুন্দি ঘেঁটে নিজেদের পক্ষে সাফাই গাইতে হয়।

এছাড়া ছাত্রদল নেতাকে ফিরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানার চন্দ্রগঞ্জ আলাইয়ারপুর ইউনিয়নে গুম হওয়া সাবেক ছাত্রদল নেতা মো. টিটু হায়দারকে এখনো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তার পরিবারের কাছে ফেরত দেয়নি।’