কলাপাড়ায় ভাতিজাদের এলোপাথারি কোপ গিয়ে লাগলো চাচার চোখে ॥

কলাপাড়ায় গাছকাটা নিয়ে সহোদরের মধ্যে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে ছোট ভাইয়ের ছেলেরা চাচা মো.আইয়ুব আলী বাচ্চু (৫৮) কে কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার মহিপুর থানার সদর ইউনিয়নের সুধীরপুর গ্রামে। আহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এলাপাতারি কোপের আঘাতে বাচ্চু মিয়ার বাম চোখ নস্ট হয়ে যাওয়ার আশংক রয়েছে বলে । এসময় তার ছেলে মিজানুর রহমান (৩৫) ও বৃদ্ধ মাতা হুরেয়া বেগম (৮০) গুরুত্বর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে কলাপাড়া স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্ের ভর্তি করেছে। এর মধ্যে মো.আইয়ুব আলী বাচ্চু ও তার সান্তান মিজানুর রহমানকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় চিকিৎসকরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আইয়ুব আলী খান বাচ্চু, ও জাকির হোসেন খান সহোদর। দীর্ঘদিন ধরে এদের সাথে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে, এমনকি মামলাও রয়েছে। গাছ কাটা নিয়ে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়।

আহত মিজানুর রহমানের স্ত্রী মোসা. শারমিন বেগম জানান, বাড়ীতে গাড়ীর গ্যারেজের জন্য তার স্বামী গাছ কাটলে তার চাচা শ্বশুর জাকির হোসেন খান এতে বাঁধা দেয়। এসময় তাদের মধ্যে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে ব্যাপক সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় জাকির হোসেন খান’র ছেলে রাসেল,রুবেল,রাজু ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তিনজনকে গুরুতর জখম করে।

কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্েরর চিকিৎসক ডা.মাহমুদুর রহমান জানান, আইয়ুব আলী খান বাচ্চুর বাম চোখে গুরুতর আঘাত রয়েছে। এ ছাড়া তার ছেলে মিজানুর রহমানও গুরুতর জখম । ফলে এদের সাধ্যমত চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মহিপুর থানার ওসি মো.মরিরুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি