শ্রীপুরে আগুনে পুড়ে মারা গেছে ঘরে শেকল দিয়ে বাঁধা প্রতিবন্ধী এক নারী ॥

গাজীপুরে শ্রীপুরের এক বাড়িতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার মধ্যরাতের এ ঘটনায় আগুনে পুড়ে মারা গেছে ঘরের ভিতর শেকল দিয়ে বাঁধা মানসিক প্রতিবন্ধী এক নারী। নিহতের নাম আসমা খাতুন (৩৫)। সে শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিম খন্ড গ্রামের আওয়ালের মোড় এলাকার আব্দুল কাদিরের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় মো. শাহ্জাহান জানান, বেশ কয়েক বছর যাবৎ আসমা খাতুন মানসিক অসুস্থ্যতায় ভুগছিল। মাঝে মধ্যেই সে কাউকে কিছু না বলে হঠাৎ বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়ে যেতো। তার অস্বাভাবিক আচরণের কারণে আসমাকে ঘরের ভেতর শিকল দিয়ে বেঁধে দরজায় তালা লাগিয়ে আটকে রাখা হতো। দারোগার চালা এলাকায় বাবার বাড়িতে থাকতেন আসমা। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে আসমাকে তালাবদ্ধ করে রাখা ঘরে আগুন লাগে। এসময় তার স্বামী নজরুল ইসলাম ঘরে ছিলেন না।

মাওনা ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার মিয়া রাজ উদ্দিন জানান, শ্রীপুরের দারোগারচালা এলাকার আব্দুল কাদিরের বাড়িতে শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে মাওনা ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যায়। তারা প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। বাড়ির আশেপাশে পানির উৎস না থাকায় দূর থেকে পানি এসে আগুন নেভাতে হয়েছে। ততক্ষনে গৃহকর্তার মেয়ে আসমা আক্তার আগুনে পুড়ে মারা যায়। তার লাশ ঘরের ভিতরে শিকলে বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়। অগ্নিকান্ডের এ ঘটনায় ওই বাড়ির ৮টি ঘর মালামালসহ পুড়েছে। অগ্নিকান্ডের কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিটের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে।

মোস্তাফিজুর রহমান টিটু
স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর।