করোনায় ইরানের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি যুক্তরাষ্ট্রের

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ইরানকে আবারো সাহায্যের প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প নিজেই বললেন, এ কঠিন সময়ে ইরানের পাশে দাঁড়াতে চায় তার দেশ। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসে বিধ্বস্ত গোটা বিশ্ব। ইরানেও ভাইরাস প্রবল ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে ইরানের কোনও সাহায্য প্রয়োজন হলে যুক্তরাষ্ট্র তা দিতে প্রস্তুত। এ খবর দিয়েছে ডয়েচে ভেলে।
এ বছরের প্রথম দিকেই চীন থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। ইউরোপে প্রথম আক্রান্ত হয়েছিল ইতালি, মধ্যপ্রাচ্যে ইরান। তখন থেকেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ একাধিকবার দাবি তুলেছে, ইরানের ওপর থেকে আপাতত বিবিধ নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিক যুক্তরাষ্ট্র।
ইরানের জনসাধারণও এই দাবি তুলেছে। বস্তুত, করোনায় বিধ্বস্ত ইরানও সরকারি ভাবে বেশ কয়েকবার জানিয়েছে, নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে তারা ঠিক মতো লড়াই করতে পারছে না। এমন পরিস্থিতিতে প্রেসিডেন্টের কাছে নিষেধাজ্ঞা তোলার দাবি তুলেছিল মার্কিন কংগ্রেসও। কিন্তু লাভ হয়নি। ডনাল্ড ট্রাম্প কারও কথায় কান দেননি। করোনা নিয়ে একাধিক বিষয়ে কথা বললেও ইরানের প্রসঙ্গে এতদিন মুখ খোলেননি ট্রাম্প। তবে বৃহস্পতিবার প্রথম তিনি জানালেন, প্রয়োজনে করোনা মোকাবিলায় ইরানকে সাহায্য করবে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্ব রাজনীতিতে যা এক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বলেই মনে করছেন কূটনীতিবিদরা।
যদিও এই মুহূর্তে করোনা মহামারিতে সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র নিজেই। আক্রান্ত প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ। মৃত ছয় হাজার। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে বেড়েছে। সব চেয়ে ভয়াবহ অবস্থা নিউ ইয়র্কে।