গুলশানে নিহত ৯ জন ইতালীয়, ১ জন ভারতীয়

গুলশানে পুলিশের সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গুলি বিনিময়, বিদেশিরা জিম্মি, গোলাগুলি চলছেরাজধানীর গুলশান এলাকায় হলি আর্টিজেন বেকারিতে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের মধ্যে ৯ জন ইতালীয় ও ১ জন ভারতীয় বলে পরিচয় শনাক্ত করা গেছে। ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাউলো জেনতিলোনি বলেন, সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের মধ্যে নয়জন হলেন ইতালির নাগরিক।

এরা হলেন আদেলে পুগলিসি, মার্কো তন্দাত, ক্লদিয়া মারিয়া দ’আন্তোনা, নাদিয়া বেনেদেত্তি, ভিনসেঞ্জো দ’আলেত্রো, মারিয়া রিভোলি, ক্রিস্টিয়ান রোজি, ক্লদিও কাপেল্লি এবং সিমনা মন্তি। এছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি সংবাদ মাধ্যম জানায়, ওই হামলায় দুইজন মার্কিন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন ভারতীয় নাগরিক তারুশী জৈন। তিনি বারকেলির ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার ছাত্রী।

নিহত অপর মার্কিন ছাত্রী হলেন বাংলাদেশি ল্যাভেন্ডারের মালিকের নাতনী অবিন্তা কবির। মায়ামির এমোরি ইউনিভার্সিটির জর্জিয়া ক্যাম্পাস জানায়, অবিন্তা কবির ঢাকায় তার পরিবারের সদস্য এবং বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। এছাড়াও ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের নাতি ফাইয়াজ হোসেন ও ঢাকার একটি আর্ট গ্যালারির সাবেক প্রধান ইশরাত আখন্দ সন্ত্রাসী ‍হামলায় নিহত হন।

শুক্রবার (০১ জুলাই) রাতে গুলশানের হলি আর্টিজেন বেকারিতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে দেশি-বিদেশি নাগরিকদের জিম্মি করে বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। শনিবার সকালে বিশেষ অভিযান চালিয়ে যৌথ বাহিনী সেখান থেকে জিম্মি ২০ জনের মরদেহ উদ্ধার করে। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে ছয় হামলাকারীর মরদেহও। এ ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ মোট ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)। শনিবার (০২ জুলাই) সকালে এক জাপানি ও দুই শ্রীলঙ্কান নাগরিকসহ মোট ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানকারীরা।